Skip to main content
Question
Zarif Mahmud
Simple man
Asked a question 6 months ago

আসসি কি এবং ইউনিকোড কি? এইন দুটোর মধ্যে পার্থক্য কি?

কোথায় আপনি?

এই MSB Ask কমিউনিটিতে আপনি যেকোনো প্রশ্ন করতে পারবেন, উত্তর দিতে পারবেন এবং নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারবেন। তাই নতুন হলে সাইনআপ করুন, আর আগেই থেকেই অ্যাকাউন্ট থাকলে লগিন করুন।  

আমেরিকান স্ট্যান্ডার্ড কোড ফর ইনফরমেশন ইন্টারচেঞ্জ যার সংক্ষিপ্ত হল আসসি। মূলত কম্পিউটারে টেক্সট বা ডকুমেন্টগুলি এনকোডিংয়ের জন্য অক্ষরের একটি সেট নির্ধারণ করার একটি পদ্ধতি হল আসসি।একটি আসসি   ফাইলে প্রতিটি বর্ণমালা, সংখ্যাসূচক বা বিশেষ অক্ষরটি ৭-বিট বাইনারি সংখ্যার দ্বারা উপস্থাপিত হয়।

ইউনিকোড একটি আন্তর্জাতিক বর্ণ সংকেত নির্ধারণি ব্যবস্থা। সকল ভাষাকে একটি সার্বজনীন মানদন্ডে নিয়ে আসা ছিল ইউনিকোডের মূল লক্ষ্য। ইউনিকোড বিশ্বের প্রতিটি ভাষার প্রতিটি বর্ণর জন্য একটি করে নম্বর প্রদান করে ফলে কম্পিউটারে একটি ভাষা অন্য একটি ভাষার সাথে সংঘর্ষ হয় না।যেহেতু কম্পিউটার শুধু বোঝে সংখ্যা দিয়ে এবং ইউনিকোডের সাহায্যে ভাষাকে সংখ্যায় রূপান্তর দেয়া হয়, তাই কম্পিউটারের সাথে আমরা যে কোন ভাষায় কথা বলতে পারি।ইউনিকোড একটি আন্তর্জাতিক অক্ষর সংকেতায়ন পদ্ধতি,কম্পিউটারে শুধু সংখ্যার ব্যবহার হয় জিরো এবং ওয়ান, কম্পিউটারে লিপি বা অন্যান্য অক্ষর সংরক্ষিত হয় সেই অক্ষরগুলির প্রতিটির পিছনে একটি করে একক সংখ্যা দিয়ে।
আরো জানতে পড়ুন

ইউনিকোড এবং আসসি উভয়ই এনকোডিং পাঠ্যের মান। এই জাতীয় মানের ব্যবহার সারা বিশ্বে খুব গুরুত্বপূর্ণ। কোড বা স্ট্যান্ডার্ড প্রতিটি প্রতীকের জন্য অনন্য নম্বর সরবরাহ করে যে কোনও ভাষা বা প্রোগ্রাম ব্যবহৃত হচ্ছে না। বড় কর্পোরেশন থেকে স্বতন্ত্র সফ্টওয়্যার বিকাশকারীদের, ইউনিকোড এবং এএসসিআইআই এর উল্লেখযোগ্য প্রভাব রয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলের মধ্যে যোগাযোগ করা কঠিন ছিল তবে প্রতিটি সময়ে এটির প্রয়োজন ছিল। বিশ্বের সকল মানুষের জন্য একটি অনন্য প্ল্যাটফর্মের যোগাযোগ এবং বিকাশের সাম্প্রতিকতম সহজতা হ'ল কিছু সর্বজনীন এনকোডিং সিস্টেম উদ্ভাবনের ফলাফল।

ASCII:  ASCII এর পূর্ণ নাম American Standard Code For Information Interchange । ASCII আধুনিক কম্পিউটারে বহুল ব্যবহৃত কোড। এর প্রকাশক ANSI(American National Standard Institute )।

Unicode: Unicode এর পূর্ণনাম হলো Universal Code বা সার্বজনীন কোড। ASCII এর সাহায্যে ২৫৬ টি চিহ্নকে কম্পিউটারে অদ্বিতীয়ভাবে বুঝানো যায়। ফলে ইংরেজি ভাষা ব্যতীত অন্য কোন ভাষা কম্পিউটারে ব্যবহার করা যেত না।  বিশ্বের সকল ভাষাকে কম্পিউটারে কোডভুক্ত করার জন্য বড় বড় কোম্পানিগুলো একটি মান তৈরি করেছেন যাকে ইউনিকোড বলা হয়। Apple Computer Corporation এবং Xerox Corporation এর একদল প্রকৌশলী ইউনিকোড উদ্ভাবন করেন।

এদের মধ্যে পার্থক্য:

১. ASCII-7 এর সাথে বামে একটি প্যারিটি বিট যোগ করে ASCII-8 তৈরি করা হয়। ASCII-8 এর ৮ বিট দ্বারা মোট ২৮ = ২৫৬ টি অদ্বিতীয় চিহ্ন কম্পিউটারকে অদ্বিতীয়ভাবে বুঝানো যায়। আর, ইউনিকোড ২ বাইট বা ১৬ বিটের কোড ফলে ২১৬   = ৬৫৫৩৬ টি চিহ্নকে কম্পিউটার সিস্টেমে অদ্বিতীয়ভাবে বুঝানো যায়।

২.বিভিন্ন ধরণের কীবোর্ড, মাউস, মনিটর, প্রিন্টার ইত্যাদি যন্ত্রের মধ্যে আলফানিউমেরিক ডেটা আদান-প্রদান করার জন্য ASCII ব্যপকভাবে ব্যবহৃত হয়। কিন্তু, ইউনিকোড ব্যবহার হয় না।

৩. ইউনিকোডের সাহায্যে বিশ্বের ছোট বড় সকল ভাষাকে কম্পিউটারে বুঝানো যায়। কিন্তু ASCII তে যায় না।

 

আশা করি বুঝতে পেরেছেন। ধন্যবাদ।

মূলত, কম্পিউটারে শুধু সংখ্যার ব্যবহার হয়। কম্পিউটারে লিপি বা অন্যান্য অক্ষর সংরক্ষিত হয় সেই অক্ষরগুলির প্রতিটির পিছনে একটি করে একক সংখ্যা দিয়ে। ইউনিকোড আবিষ্কার হওয়ার আগে কম্পিউটারে ব্যবহারের জন্য শত শত লিপিসংকেত ছিলো ঐ একক সংখ্যা হিসাবে ব্যবহারের জন্য। একটি লিপিসংকেতের পক্ষে সব অক্ষরের সমর্থন দেয়া সম্ভব ছিলো না: যেমন, ইউরোপিয় ইউনিয়েনেরই অনেকরকম লিপিসংকেতের প্রয়োজন হত তাদের সব ভাষাকে সমর্থন দেয়ার জন্য। এমনকি ইংরেজির মতো একটি ভাষার স্বাভাবিক ব্যবহারের ক্ষেত্রেও একটিমাত্র লিপিসংকেত দিয়ে অক্ষর, বিরাম চিহ্ন এবং কারিগরি অক্ষরগুলির সমর্থন দেয়া সম্ভব হতো না।
 

সবচেয়ে বড় সমস্যা ছিলো যে ঐ লিপিসংকেতগুলি একটি আরেকটির সাথে ঝামেলা করত বা এখনও করে। কারণ দু'টি লিপিসংকেতে দু'টি আলাদা অক্ষরের জন্য একই সংখ্যা ব্যবহার করা হয় অথবা একই অক্ষরের জন্য আলাদা আলাদা সংখ্যা ব্যবহার করা হয়। যার জন্য, যে-কোনো কম্পিউটার (বিশেষ করে সার্ভার)-এ অনেকগুলি লিপিসংকেতের সমর্থনের প্রয়োজন হয়ে দাঁড়ায়; তার পরেও বিভিন্ন লিপিসংকেত বা প্লাটফর্মের ডাটা প্রসেস করার সময় সেটা বিকৃত হয়ে যাবার ভয় থেকেই যায়।

আসসি কি এবং ইউনিকোড কি? এইন দুটোর মধ্যে পার্থক্য কি?

ইউনিকোড পৃথিবীর প্রতিটি ভাষার প্রতিটি অক্ষরের জন্য একটি একক সংখ্যা বরাদ্দ করছে, সেটা যে প্লাটফর্মের জন্যই হোক, যে প্রোগ্রামের জন্যই হোক, আর যে ভাষার জন্যই হোক। ইউনিকোডের এই বৈশিষ্ট্য প্রযুক্তিশিল্পে নেতৃত্ব দিচ্ছে এরকম কোম্পানিগুলি যেমন, Apple, HP, IBM, JustSystem, Microsoft, Oracle, SAP, Sun, Sybase, Unisys সহ অনেকেই গ্রহণ করেছে। আধুনিক বৈশিষ্ট্যের ব্যবহারের জন্য যেমন, XML, Java, ECMAScript (JavaScript), LDAP, CORBA 3.0, WML, ইত্যাদি, ইউনিকোডের প্রয়োজন, এবং এই ইউনিকোডই ISO/IEC 10646-এর প্রয়োগের একমাত্র উপায়। অনেক অপারেটিং সিস্টেমে, নতুন সব ইন্টারনেট ব্রাউজারে এবং এরকম অনেক এ্যপ্লিকেশনে ইউনিকোডের সমর্থন রয়েছে। ইউনিকোড বৈশিষ্টের উত্থান, একে সমর্থন করে এরকম টুলের উপস্থিতি, বর্তমান বিশ্বের সফটওয়্যার উন্নতির গতির জন্য গুরুত্বপুর্ণ।

আর আমেরিকান স্ট্যান্ডার্ড কোড ফর ইনফরমেশন ইন্টারচেঞ্জ যার সংক্ষিপ্ত হল আসসি। মূলত কম্পিউটারে টেক্সট বা ডকুমেন্টগুলি এনকোডিংয়ের জন্য অক্ষরের একটি সেট নির্ধারণ করার একটি পদ্ধতি হল আসসি।একটি আসসি   ফাইলে প্রতিটি বর্ণমালা, সংখ্যাসূচক বা বিশেষ অক্ষরটি ৭-বিট বাইনারি সংখ্যার দ্বারা উপস্থাপিত হয়।