Skip to main content
Roton Kumar Roy
Asked a question 6 months ago

ইউটিউবে কাজ করি। সাবস্ক্রাইবার বাড়াতে আমাকে কী করলে ভালো হয় বলে আপনি মনে করেন?

কোথায় আপনি?

এই MSB Ask কমিউনিটিতে আপনি যেকোনো প্রশ্ন করতে পারবেন, উত্তর দিতে পারবেন এবং নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারবেন। তাই নতুন হলে সাইনআপ করুন, আর আগেই থেকেই অ্যাকাউন্ট থাকলে লগিন করুন।  

Wasimul Haque Anis
নতুন তথ্যর সন্ধানে,

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বাড়ানোর নানান কৌশল আছে। তবে একটি প্রকাশিত ভিডিওর সাথে থাকা নানান ফিচার ব্যবহার করেও ইউটিউবে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বাড়ানো যায়। যেমন: প্রকাশের সময় ভিডিওর বিবরণী তথা ডেসক্রিপশন বক্সে চ্যানেল সাবস্ক্রিপ্সনের লিংক শেয়ার করতে পারেন। এমনকি শুধু সাবস্ক্রিপ্সন লিংক শেয়ার করা নয়, নিশ্চিতভাবে সাবস্ক্রাইব করানোর জন্য বিশেষ লিংক ব্যবহার করা যেতে পারে। কেউ এই লিংকে প্রবেশ করলে ইউটিউব তাকে তাৎক্ষণিক সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করার একটি বিশেষ নোটিফিকেশন দেখাবে। এর জন্য প্রথমে অ্যাড্রেস বারে থাকা চ্যানেলের লিংক কপি করুন। তারপর লিংক থেকে ভিউ এজ সাবস্ক্রাইবার  (?view_as=subscriber)  অংশটি তুলে দিয়ে ?sub_confirmation=1 অংশ জুড়ে দিন। শুধু ভিডিওর বিবরণীতে নয়, ভিডিওর নিচে প্রথম মন্তব্যের ঘরে একটি পিন কমেন্টের মাধ্যমেও সাবস্ক্রিপ্সন লিঙ্ক শেয়ার করতে পারেন

এছাড়া ভিডিওর শেষে ‘ইন্ড স্ক্রিন অ্যান্ড এনোনেশনস’ (End screen & Annotations) এবং কার্ডসে (Cards)  সাবস্ক্রিপশন লিংক শেয়ার করতে পারেন। এভাবে একটি ভিডিওর সাথে থাকা সম্ভাব্য সব রকম সুযোগসুবিধা ব্যবহার করে আপনি চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বাড়াতে পারবেন। তবে চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার বাড়ানোর সর্বোত্তম উপায় হল, একটি চ্যানেলে একই ক্যাটাগরির ভিডিও ধৈর্য ধরে ক্রমাগত আপলোড করে যাওয়া। এভাবে কাজ করলে একসময় সাফল্য আসবেই।

চ্যানেলের একটি ভালো থিম দিন

অসাধারণ কনটেন পোস্ট করুন।

আপনার ভিডিওর মান বাড়াতে প্রোডাকশন কোয়ালিটি ভালো করুন।

কিছু এভারগ্রিন,অনন্য ভিডিও পোস্ট করুন।

আপনার ভিডিওটি যেন দেখতে সুন্দর ও সহজ  হয় তা নিশ্চিত করুন।

ভিউ বাড়াতে 


 

 প্রথমে আপনাকে কোয়ালিটি সম্পন্ন ভিডিও বানাতে হবেযার সাউন্ড স্পষ্ট হবে এবং গ্রাফিক্সের কাজ হবে প্রফেশনালমানের।কি-ওয়ার্ড গবেষনা: আপনার ভিডিও ইউটিউব এর র্সাচে টপে চলেআসার সবচেয়ে গুরুত্বর্পূণ ভূমিকা হলো সঠিক কি-ওয়ার্ড গবেষনা।তাই সঠিকভাবে কি-ওয়ার্ড গবেষনা করে, কি-ওয়ার্ড নির্বাচন করুন। টাইটেল: ভিডিওতে কি-ওয়ার্ড রিলেটেড টাইটেল ব্যবহারকরবেন, তবে ৫০-৬০ ওয়ার্ডের আকর্ষণীয় টাইটেল লিখবেন।কারন- আপনার ভিডিওর আকর্ষণীয় টাইটেলই ভিউ নিয়ে আসবে।সাবটাইটেল: ভিডিওতে কি-ওয়ার্ড রিলেটেড সাবটাইটেল অবশ্যইব্যবহার করবেন। ডেসক্রিপসান: যতটা পারেন ডেসক্রিপসান বড় করে দিতে চেষ্টাকরবেন। কেননা, ইউটিউব ৫০০০ শব্দের ডেসক্রিপসান দেওয়ার সুযোগ রাখছে সেখানে আপনি ১০০০-১৫০০ শব্দেরডেসক্রিপসান দিতে পারবেন না। দিতেই হবে বলছি না, তবে দিতেচেষ্টা করবেন, এটা আপনার ভিডিও টপে আসতে খুবই সাহয্যকরবে। আর ডেসক্রিপসানে আপনার নির্বাচিত টাইটেল ব্যবহারকরতে ভূলবেন না। ট্যাগ: ভিডিওতে কি-ওয়ার্ড রিলেটেড ৮-১০ ট্যাগ ব্যবহার করবেন,এমনকি টাইটেলও ট্যাগ হিসেবে একবার ব্যবহার করবেন।থাম্বনাইল: কি-ওয়ার্ড রিলেটেড প্রফেশনাল মানের আকর্ষণীয়থাম্বনাইল ব্যবহার করবেন। সময় ঠিক করুন: সব সময় চেষ্টা করবেন নির্ধারিত সময়ে আপনারচ্যানেলে ভিডিও আপলোড করতে। নির্ধারিত সময়ে আপলোডহলে এস. ই. ও এবং ইউজার এ দুটোর জন্যই বেশ ভাল। অ্যানোটেশান: ভিডিও শুরুর ২৫-৩০ সেকেন্ডের মধ্যে একটাঅ্যানোটেশান দিবেন এবং ভিডিওর শেষে আরো ৪-৫অ্যানোটেশান দিয়ে দিবেন। তখন ইউজার আপনার ভিডিও নাকেটে ঐ ভিডিওগুলোতে যাওয়ার একটা সুযোগ থাকে আরএভাবে আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়তে থাকবে। ইন্ট্রো ভিডিও: আপনার চ্যানেলে অবশ্যই একটা ইন্ট্রোভিডিও দিবেন। এটা যেমন আপনার চ্যানেলের অথোরিটিঅর্জনের ক্ষেত্রে সাহায্য করবে ঠিক তেমনি চ্যানেলেরসাবস্ক্রাইভারও বাড়িয়ে দিবে। আর চ্যানেলের সাবস্ক্রাইভার বাড়বেমানে ভিউও বাড়বে। ব্লগিং: আপনার ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর আরেকটা উপায় হলো, কি-ওয়ার্ড রিলেটেড ওয়েবসাইট বা ব্লগসাইট খুলে আপনি আপনারভিডিওটি এম্বেড করে টিউন করুন। তাছাড়াও আপনি কি-ওয়াডরিলেটেড বিভিন্ন টিউন করুন, তাতেও ভিউ বাড়বে। টিউমেন্ট করুন: আপনার ভিডিওর কি-ওয়াড অনুযায়ী টপে থাকাভিডিওগুলোতে টিউমেন্ট করুন, কিন্তু সেখানে স্পাম করবেন না।১-২ লাইনের ভালো টিউমেন্ট করবেন। ইনফর্ম করুন: আপনার ভিউয়ারদের অবশ্যই ইনফর্ম করুন, তারা যেনসম্পন্ন ভিডিওটা দেখে এবং লাইক অথবা ডিজলাইক করে। কারনভিডিওতে যখনই লাইক, ডিজলাইক ও টিউমেন্ট পড়ে তখনই ভিডিওপপুলার হয়, আর এটা ইউটিউব সার্চ এ প্রাধন্য পায়। উত্তর দিন: আপনার ভিডিওতে ভিউয়ারদের দেওয়া টিউমেন্টেরউত্তর যত দ্রুত সম্ভব দিবেন। এতে ভিউয়ারা বোঝবে যে আপনি তাদের প্রতি আন্তরিক, তেমনি ইউটিউব ও বোঝবে যে আপনিভিউয়ারদের প্রাধন্য দেন। সোশ্যাল শেয়ার: ভিডিও ভিউর জন্য সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারসবচেয়ে বেশী গুরুত্বপূর্ন। তাই যত পারেন, সকল সোশ্যালমিডিয়াতে আপনার ভিডি ও শেয়ার করবেন। সবকিছু ঠিকঠাক ভাবে করতে পারলে অবশ্যই আপনার ভিডিওতে ভিউহবে আর না হয়ে যাবে কোথায় ভিউ তো হতেই হবে।

এই ভিডিওটা দেখতে পারেন- 

https://youtu.be/oSrtFPC5rrY

Question Stats

28 views
3 followers
Asked a question 6 months ago
Views this month