// Start Helpwise Chat Code // End of Helpwise Chat Code
Skip to main content
Question
আইন
Mahmudul Hasan Ashik
Student | Blogger | Tech Lover
Asked a question 5 months ago

জাতীয় পরিচয়পত্রের স্বাক্ষর কী পরিবর্তন করা যায়?

কোথায় আপনি?

এই MSB Ask কমিউনিটিতে আপনি যেকোনো প্রশ্ন করতে পারবেন, উত্তর দিতে পারবেন এবং নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারবেন। তাই নতুন হলে সাইনআপ করুন, আর আগেই থেকেই অ্যাকাউন্ট থাকলে লগিন করুন।  

জ্বি যায়। আপনি অনলাইনে বা অফ লাইনে দুই ভাবেই করতে পারবেন। অনলাইনে করতে চাইলে https://services.nidw.gov.bd/login7

Mohammad Alif
Digital Marketer | Philosophy Enthusiast

অফিসে যোগাযোগ করতে হবে

Wasimul Haque Anis
নতুন তথ্যর সন্ধানে,

অনলাইনে আবেদন করে আপনি সমস্ত তথ্য পরিবর্তন করতে পারেন ।

এটা জানার ইচ্ছা আমার আছে। আমি সাক্ষর দেয়ার সময় স্ক্রিন এর ব্যাপার টা বুঝতে না পেরে পুরা মুরগীর ঠেংগ এর মতন সাক্ষর হয়ে গিয়েছে।

অনলাইনের মাধ্যমে করা যায়

অনলাইনে করা যাই। বা অফলাইনেও করা যাই। তবে আমাদের দেশে অফলাইনে করাটা ভালও হবে 

নতুন স্বাক্ষর এর নমুনাসহ গ্রহণযোগ্য প্রমাণপত্র সংযুক্ত করে আবেদন করতে হবে। তবে স্বাক্ষর একবারই পরিবর্তন করা যাবে।

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন করার নিয়ম

বাংলাদেশে যত জাতীয় পরিচয়পত্র (ন্যাশনাল আইডি কার্ড) আছে এর মধ্যে ২০% জাতীয় পরিচয়পত্রে তথ্য ভুল রয়েছে

 

জাতীয় পরিচয়পত্রের ভুল সংশোধনের জন্য রায়হানের কি কি কাগজপত্র লাগবে

এস. এস. সি. / সমমানের সার্টিফিকেট
জন্ম নিবন্ধন সনদ
নাগরিকত্ব সনদ
পিতা মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি

সবগুলো কাগজপত্র অবশ্যই সত্যায়িত হতে হবে

১. উপরোক্ত কাগজপত্রগুলো এবং তার ভুল জাতীয় পরিচয়পত্রটি নিয়ে রায়হানকে যেতে হবে NID রেজিস্ট্রেশন উইং / উপজেলা নির্বাচন অফিসে / জেলা নির্বাচন অফিসে

২. সেখানে গিয়ে নির্ধারিত ফরমে রায়হানকে জাতীয় পরিচয়পত্রের ভুল সংশোধনের জন্য আবেদন করতে হবে।

৩. উক্ত ফরমটি পুরন করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংযুক্ত করে কার্যালয়ের নির্দিষ্ট কাউন্টারে জমা দিতে হবে।

৪. উক্ত কাউন্টার থেকে রায়হানকে একটি প্রাপ্তি স্বীকার রসিদ দেওয়া হবে। উক্ত রসিদে সংশোধিত জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়ার তারিখ উল্লেখ থাকবে । নির্ধারিত দিনে রায়হানকে গিয়ে সংশোধিত জাতীয় পরিচয়পত্রটি নিয়ে আসতে হবে

 

তো চলুন জাতীয় পরিচয়পত্রের ভুল সংশোধন সংক্রান্ত আরো কয়েকটি সমস্যা এবং উক্ত সমস্যাগুলোর উত্তর দেখি

 

প্রশ্নঃ বিয়ের পর স্বামীর নাম সংযোজনের প্রক্রিয়া কি? উত্তরঃ নিকাহনামা ও স্বামীর আইডি কার্ড এর ফটোকপি সংযুক্ত করে NID রেজিস্ট্রেশন উইং / সংশ্লিষ্ট উপজেলা/ থানা/ জেলা নির্বাচন অফিস বরাবর আবেদন করতে হবে

 

প্রশ্নঃ বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। এখন ID Card থেকে স্বামীর নাম কিভাবে বাদ দিতে হবে?

উত্তরঃ বিবাহ বিচ্ছেদ সংক্রান্ত দলিল (তালাকনামা) সংযুক্ত করে NID Registration Wing/সংশ্লিষ্ট উপজেলা/ থানা/ জেলা নির্বাচন অফিসে আবেদন করতে হবে

 

প্রশ্নঃ ঠিকানা কিভাবে পরিবর্তন/ সংশোধন করা যায়?

উত্তরঃ শুধুমাত্র আবাসস্থল পরিবর্তনের কারনেই ঠিকানা পরিবর্তনের জন্য বর্তমানে যে এলাকায় বসবাস করছেন সেই এলাকার উপজেলা/ থানা নির্বাচন অফিসে ফর্ম ১৩ এর মাধ্যমে আবেদন করা যাবে

 

প্রশ্নঃ বয়স/ জন্ম তারিখ পরিবর্তন করার প্রক্রিয়া কি? উত্তরঃ যাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি বা সমমানের, তাদের আবেদনপত্রের সঙ্গে এসএসসি বা সমমানের সনদের সত্যায়িত ফটোকপি জমা দিতে হবে। বয়সের পার্থক্য অস্বাভাবিক না হলে প্রাপ্তি স্বীকারপত্রে উল্লেখ করা তারিখে সংশোধিত পরিচয়পত্র বিতরণ করা হয়। অস্বাভাবিক পরিবর্তনের ক্ষেত্রে সনদের মূল কপি প্রদর্শন কিংবা ব্যক্তিগত শুনানিতে অংশ নিতে হতে পারে। যাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি বা সমমানের কম, তাদের জন্মতারিখ সংশোধনের জন্য আবেদনপত্রের সঙ্গে জমা দিতে হবে জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার আগের তারিখে পাওয়া সার্ভিস বুক বা এমপিওর কপি, ড্রাইভিং লাইসেন্স, জন্ম সদন, নিকাহনামা, পাসপোর্টের কপি প্রভৃতি। এ ক্ষেত্রে প্রকল্প কার্যালয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা বা প্রকল্প পরিচালক আবেদনকারীর সাক্ষাৎকার নিয়ে থাকেন। এ ছাড়া দরকার হলে সংশ্লিষ্ট নির্বাচন কর্মকর্তার মাধ্যমে সরেজমিনে তদন্ত করা হয়।

 

প্রশ্নঃ স্বাক্ষর পরিবর্তন করতে চাই, কিভাবে করতে পারি? উত্তরঃ নতুন স্বাক্ষর এর নমুনাসহ গ্রহণযোগ্য প্রমাণপত্র সংযুক্ত করে আবেদন করতে হবে। তবে স্বাক্ষর একবারই পরিবর্তন করা যাবে।

 

প্রশ্নঃ ID Card হারিয়ে গিয়েছে। কিভাবে নতুন কার্ড পেতে পারি?

উত্তরঃ পরিচয়পত্র হারিয়ে গেলে সংশ্লিষ্ট থানায় ভোটার নম্বর বা আইডি নম্বর উল্লেখ করে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করতে হবে। এরপর জিডির মূল কপিসহ প্রকল্প কার্যালয় থেকে নেওয়া ছকের আবেদনপত্র নির্দিষ্ট কাউন্টারে জমা দিয়ে প্রাপ্তি স্বীকারপত্র নিতে হবে। প্রাপ্তি স্বীকারপত্রে উল্লেখ করা তারিখে ডুপ্লিকেট পরিচয়পত্র বিতরণ করা হয়

 

প্রশ্নঃ আমি বিদেশে অবস্থানের কারণে Voter Registration করতে পারিনি, এখন কিভাবে করতে পারবো? উত্তরঃ সংশ্লিষ্ট উপজেলা/থানা/জেলা নির্বাচন অফিসে বাংলাদেশ পাসপোর্ট-এর অনুলিপিসহ জন্ম সনদ, নাগরিকত্ব সনদ, এসএসসি (প্রযোজ্যক্ষেত্রে) সনদ, ঠিকানার সমর্থনে ইউটিলিটি বিলের কপি বা বাড়ী ভাড়া বা হোল্ডিং ট্যাক্সের রশিদের কপিসহ আবেদন করতে হবে এবং সংশ্লিষ্ট ফর্মসমূহ পূরণ করতে হবে।

 

প্রশ্নঃ নতুন ভোটার হওয়ার ক্ষেত্রে কি কি কাগজ পত্রাদি প্রয়োজন?
উত্তরঃ জন্ম নিবন্ধন সনদ, এস,এস,সি বা সমমানের পরীক্ষা পাসের সনদ (যদি থাকে), ঠিকানা প্রমানের জন্য কোন ইউটিলিটি বিলের কপি, নাগরিক সনদ, বাবা-মা এবং বিবাহিত হলে স্বামী/স্ত্রীর NID কার্ডের ফটোকপি, পাসপোর্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স