Skip to main content
Question
Roton Kumar Roy
Asked a question last year

কি কি করলে fiverr একাউন্ট ব্যান করা থামানো যায়?

কোথায় আপনি?

এই MSB Ask কমিউনিটিতে আপনি যেকোনো প্রশ্ন করতে পারবেন, উত্তর দিতে পারবেন এবং নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারবেন। তাই নতুন হলে সাইনআপ করুন, আর আগেই থেকেই অ্যাকাউন্ট থাকলে লগিন করুন।  

ফাইবার আইডি নষ্ট তথা ব্যান হবার সাধারণ কারনগুলা হলো-

 

১। আপনি ফাইভার থেকে কোন কিছু কপি করতে পারবেন কিনতু কখনও কোন টেক্সট  পেস্ট করবেন না। কারন ফাইভার কপি প্রব্লেম করে না কোন কন্টেন পেস্ট হলে সেটা মার্ক হয় জার কারনে ফাইভার আইডি নস্ট হয়ে থাকে।

২। বায়ার কে কখনও পারসনাল ইনফরমেসন দেয়া যাবে না। তবে অনেক ক্ষেএে দেয়া সম্ভভ এতা নিয়ে আরেকটা টিউন করব।

৩। বায়ার এর সাথে কোন ঝামেলা করা যাবে না।

৪। ১ পিসি তে ২ তা আইডি চালানো যাবে না।

৫। গিগ এর ডেস্ক্রিপ্সন এ পোরটফলিও লিঙ্ক দেয়ার জন্য ফাইভার ফোরাম চেক করে দেকবেন। কোন কোন লিঙ্ক শেয়ার করা যাবে। এর বাহিরে অন্য কোন লিঙ্ক দিলে আইডি বা গিগ নস্ট হবে।

৬। টানা অনেক দিন আইডিতে লগিন না করলে গিগ পুস হয়ে যাবে এবং এতে করে আইডি নস্ট হোয়ার যুকি থাকে।

৭। বায়ারের সাথে কথা বলার সময় মানে কোন প্রজেক্ট নিয়ে আলোচনা করার সময় দামের কথা আসতে পারে এ ক্ষেএে  এমন ধরনের  (price, Pay, @)  এই  ওয়াড গুলো লিখা যাবে না।

এছাড়াও আরও কারণ থাকতে পারে। বিস্তারিত -

http://arifulantor.blogspot.com/2018/05/fiverr.html?m=148

নিচের এই সকল কাজ করলে fiverr একাউন্ট ব্যান করা থামানো যাবে,

একাউন্ট সম্পর্কে :

১. ১টা IP বা কম্পিউটার / ল্যাপটপ দিয়ে একটা একাউন্ট করা যাবে .  একাধিক একাউন্ট ব্যবহার করলে সবগুলোই ব্যান হওয়ার সম্ভাবনা আছে! 

২. কম্পিউটার / ল্যাপটপ যে একাউন্ট ব্যবহার করতেছেন সেটা মোবাইল APP এ ব্যবহার করতে পারবেন . কিন্তু একাধিক মোবাইল এ ব্যবহার না করে ভালো .

৩. একই WIFI এ একাধিক একাউন্ট ব্যবহার করবেন না .  ডিভাইস আলাদা হলেও একটা WIFI  এর আন্ডার এ একটা একাউন্টই থাকা ভালো . কারণ হলো আপনি একাধিক ডিভাইস ব্যবহার করলেও . IP ১টাই থাকবে এতে আপনার একাউন্ট ডিসএবল হওয়ার চান্স থাকবে .

৪. WIFI দিয়ে মোবাইল APP চালাতে পারবেন . কিন্তু ঐযে একটা WIFI দিয়ে একটা একাউন্ট . 

ডিসএবল একাউন্ট : 

5. একাউন্ট ডিসএবল হলে . উইন্ডোস নতুন করে দিবেন , ব্রাউসার নতুন করে ইনস্টল দিবেন . নতুন ইমেইল এড্রেস এন্ড নতুন নম্বর দিয়ে ফ্রেশ একাউন্ট খুলবেন . আসা করি প্রব্লেম করবে না .

৬. একাউন্ট এ same সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট অ্যাড করবেন না . যদি অ্যাড করতে চান তাহলে ডিফারেন্ট করবেন . আগেরটার সাথে যেনো কোনো মিল না থাকে . আর যদি ঝামেলা মনে হয় তাহলে না অ্যাড করে ভালো .

নতুন  গিগ : 

৭. নতুন অবস্থায় ৭টা গিগ আপলোড দিবেন . এতে কাজ পাওয়ার চান্স বেশি থাকে .

৮. গিগ এ কোনো কপি পেস্ট করবেন না . সব নিজে লেখার চেষ্টা করবেন .

গিগ ইমেজ :

৯. ইউনিক গিগ ইমেজ দেয়ার চেষ্টা করবেন . এন্ড ইমেজ হবে সিম্পল এন্ড চোখে লাগে এমন .

১০. ইমেজ এ টেক্সট দিবেন বড়ো করে তাহলে BUYER রা খুব সহজে আপনার গিগ কি টপিক এর উপর তা বুজতে পারবে .

গিগ ডেসক্রিপশন :

১১. গিগ ডেসক্রিপশন এ লিখবেন খুব সিম্পল এন্ড ডাইরেক্ট ফরওয়ার্ড . আপনি কি সার্ভিস ডিসিশন সেটা তুলে ধরবেন . এন্ড পারলে একটু ডেসক্রিপশন তা মজাদার করে তুলবেন .

কি কি করলে fiverr একাউন্ট ব্যান করা থামানো যায়?

১২. উপরের পিকচার এ যে স্টেপ গুলো দেয়া আছে ঐগুলো ফলো করলে আসা করি একটা ভালো গিগ ডেসক্রিপশন লেখা হয়ে যাবে যা আপনার গিগ rank করতে হেল্প করবে .

গিগ কীওয়ার্ড :

১৩. গিগ কীওয়ার্ড গুলো খুব বুজে শুনে দিবেন . ১০টা টপ গিগ এর কীওয়ার্ড দেখে দেন নিজে একটা কীওয়ার্ড লিস্ট বানিয়ে সেগুলো দিবেন . but ফুল কপি করবেন না একজন এর কাজ থেকে . ৫ জন এর থেকে 5টা নিন .

১৪. ভিডিও দেয়ার চেষ্টা করুন .

Question Stats

529 views
2 followers
Asked a question last year
Views this month